Tech

কিভাবে ইউটিউবে দ্রুত সফল হওয়া যায় | How To SUCCESS in YouTube bangla 2021 (3 Pro Tips)

How To SUCCESS in YouTube bangla 2021 

আমাদের মধ্যে অনেকেই আছে। যারা ইউটিউবে কাজ করে টাকা ইনকাম করতে চাই। শুধু আপনার মন চাইলেই কি টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আমি বলব এটা একদমই অসম্ভব। কারণ আপনি ইউটিউব থেকে, তখনই টাকা ইনকাম করতে পারবেন। যখন আপনি ইউটিউব কন্টেন ক্রিয়েট করে। ভিডিও আপলোড করে কোন একদিন সফল ইউটিউবার হবেন।  আর সেই দিনই টাকা ইনকাম করার যোগ্য হবেন। 

 

কিভাবে ইউটিউবে দ্রুত সফল হওয়া যায়?

 

হ্যাঁ অবশ্যই আপনি ইউটিউব থেকে ইনকাম করতে পারবেন। তবে আপনাকে সফল হতে হবে। তা না হলে আপনার পক্ষে ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করা সম্ভব না। তবে সফল হওয়ার কি এতই সহজ। যে আপনার মন চাইলে আপনি সফল হয়ে গেলেন। ইউটিউব প্ল্যাটফর্ম টা যেমন আপনাকে একটা নতুন ক্যারিয়ার গড়ে দিতে পারে।  ঠিক তেমনি অন্যান্য কাজের মতই এখানে অনেক বেশি পরিশ্রমে করতে হবে। আপনারা এগুলো কখনোই না ভেবেই। মানে আমি বুঝাতে চাচ্ছি আপনারা পরিশ্রমের কথা না ভেবেই। সবাই দ্রুত সফল হওয়ার কথা চিন্তা ভাবনা করে। 

New Rules of YouTube Success 2021

 

এটার অর্থ যে আপনারা ইউটিউবে একটা চ্যানেল খুলে তার পরের দিনই লাখ-লাখ ভিউজ। এমনকি তার পরের দিনে টাকা ইনকামের কথা ভেবে থাকেন। এইরকম কিছু নতুন ইউটিউবাররা কখনোই সফল হতে পারেনা। এটিও এক প্রকার অসফলতার কারণ। তবে আমি যদি আপনাদেরকে ইউটিউবে দ্রুত সফল হওয়ার তিনটি গুরুত্বপূর্ণ টিপস বলি।  এসি টিপস গুলো আপনি আপনার ইউটিউব লাইফে এপ্লাই করতে পারেন।  এর ফলে আপনি কম সময়ের ভিতর সফলতা অর্জন করতে পারবেন। যেগুলা প্রায় 99 শতাংশ ইউটিউবাররা এখন পর্যন্ত জানে না।

 

YouTube Success 2021

তবে এটি সবার ক্ষেত্রেই হয়ে থাকে।  আজকে যারা সফল তা দেখে তো এই ভুলগুলা হয়েছিল। একজন ইউটিউবার যখন এই ভুলগুলো থেকে বের হয়ে আসতে পারবে।  অথবা এই রকম কিছু আজেবাজে চিন্তা থেকে আপনারা বের হতে পারবেন।  আর তখন থেকেই আপনি একজন সফল ইউটিউবার এর পথে পা বাড়াবেন।

কারণ এই সকল চিন্তা ভাবনা আপনার ব্রেইন তাকে এমন ভাবে কাস্টমস করে।  যার ফলে ইউটিউবিং করার চিন্তাভাবনা আপনার মাথায় থেকে একদমই উঠে যায়। আর আপনি ভাবতে থাকেন যে আপনার দ্বারা আর ইউটিউবিং করা সম্ভব না। তো আজকের এই তিনটি গুরুত্বপূর্ণ টিপস জেনে রাখুন। এটি আপনার ইউটিউবিং করার বাধাকে অতিক্রম করার সহায়তা করতে পারে। 

 

প্রথম টিপস- 

 

আপনি কখনই ভাববেন না যে আপনার কাছে কম্পিউটার ল্যাপটপ বা ডিএসএলআর নাই। অনেক নতুন ইউটিউবার রয়েছে। যারা পুরাতন কিছু সফল ইউটিউবার এর দিকে তাকিয়ে মনে মনে বলতে থাকে। যে সেই ইউটিউবার হয়তোবা তার ডিএসএলআর  ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও করে। তাই  সে সফল।  তার ভিডিওগুলো কম্পিউটারে এডিট করে অথবা তার চ্যানেলটাকে কম্পিউটার ম্যানেজ করে। তাই সে সফল। আমি মনে করি এটি একটি সম্পূর্ণ ভাবে ভুল ধারণা। অনেক ইউটিউবার যারা নতুন ইউটিউবে এসে ঝরে পড়ে। শুধুমাত্র এই কারণে। তারা নিজের মনের ভেতর আজেবাজে চিন্তা ভাবনা থেকে বের হতে পারে না।

 

আমার দেখা প্রায় অধিকাংশ ইউটিউবার। প্রথমে ইউটিউবে টাকা ইনকাম করে। পরবর্তীতে সেই টাকা দিয়ে ক্যামেরা থেকে শুরু করে সমস্ত কিছু কিনে নেয়। আর তখনই তার  সব কিছু হয়। তাই কখনো ভাববেন না আপনার বাড়িতে বিল্ডিং নিয়ে দেখে আপনি একজন সফল ইউটিউবার হতে পারবেন না।  আপনার ঘরের ভিতরে ওয়াল না থাকলে আপনি হয়তো বা ভিডিও করতে পারবেন না অথবা আপনার ভিডিওটি কোয়ালিটিফুল হবে না। এছাড়া অনেক এভাবে যে হয়তোবা এই কারনে আমার ভিডিওটা কেউ দেখবে না।  আপনি যেভাবে শুরু করবেন। সেভাবে মানুষের কাছে ভালো লাগবে। যদি আপনি সেই কন্টাকে মানুষের চাহিদা অনুযায়ী দিতে পারেন।

 

দ্বিতীয় টিপস-

 

এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি টিপস। কেননা এই জিনিসটার কারণে একজন নতুন ইউটিউবার  এক পর্যায়ে হতাশ হয়ে যায়।  সেটি হলো তার চ্যানেলে নতুন অবস্থাতে ভিরুস আসেনা।  সাবস্ক্রাইবার হয়না। এছাড়াও ওয়াচ টাইম না হওয়ার কারণে তার চ্যানেলটিকে মনিটাইজেশন করতে পারে না।  এটির মূল কারণ আপনি নিজেই। সে হয়তো বা ভাবে যে  আমার দ্বারা হয়তোবা  ইউটিউব করা সম্ভব না।  অথবা একটু ভাবতে পারে যে  আমাকে কেউ প্রমোট না করলে হয়তো বা কোনদিনও নিউজ পাওয়া সম্ভব না।  তাই তারা বিভিন্ন চ্যানেলে গিয়ে  নিজেকে প্রমাণ করার জন্য অনুরোধ করে।  আসলে এটি একটি সম্পূর্ণ ভ্রান্ত ধারণা।  আপনি কখনোই ইউটিউব চ্যানেলের জন্য ভিউ সাবস্ক্রাইবার অথবা ওয়াচ টাইম  এর জন্য হতাশ হবেন না। এবং এসবের পিছনে কখনোই  ঘুরবেন না।  

 

 এতে করে আপনাকে সারা জীবনই ঘুরতে হবে।  কিন্তু কখনোই সফল হতে পারবেন না। ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম তো দূরের কথা। আমি মনে করি এর জন্য আপনাকে  ফোকাসটা কনটেন্ট কয়টার দিকে দেওয়া উচিত।  এতে করে আপনার ক্রিটিভিটি আগের তুলনায় অনেক বেশি উন্নতি লাভ করবে। প্রথমে  নিজের ক্রিটিভিটিটাকে আপডেট করতে শিখুন। সবার থেকে ভিন্ন রকম ভিডিও তৈরি করার চেষ্টা করুন। একই টপিকে হাজারো ইউটিউবার ভিডিও অলরেডি বানিয়ে রেখেছে।  আপনি নতুন অবস্থা দেশ এই টপিকের ভিডিওগুলো স্কিপ করুন। কিছু ইউনিক ভিডিও তৈরি করার পরিকল্পনা করুন। এতে করে সেই ভিডিওর যদি কম্পিটিশন  কম থাকে। এতে করে সেই ভিডিও টি ইউটিউব র‍্যাংক করে দিবে নিজে থেকেই। 

 

তৃতীয় টিপস-

 

আমাদের অনেকেরই শখ থাকে। যে আমরা একটা চ্যানেল খুলে সেখানে সুন্দরভাবে কাজ ক… মানুষ আমাদের ভিডিও গুলো দেখবে। এমনকি আমরা দ্রুত সফল হব অথবা পরিচিতি লাভ করব। হতে পারে মানুষ আপনাকে চিনবে আপনার অনেক বেশি ফ্ল্যাড হবে এরকম কিছু চিন্তা-ভাবনা নেই। আমি মনে করি  আপনার চিন্তাভাবনা খুবই সুন্দর।  কিন্তু এক জায়গায় প্রবলেম সেটা হলো যে আপনি ফেস ক্যামেরা ভিডিও করতে পারেন না।  অথবা নিজের কাছে নিজেকে সুন্দর লাগে না।  হতে পারে আপনি কথা বলতে পারেন না ভিডিওতে।  কথা না বলার কারনে আপনার ভিডিও টা তে ভয়েসটা সুন্দর হচ্ছে না।  অতঃপর আপনার ভিডিওটা দেখতে একদম  নিজের কাছ কাজে লাগে।

 

 এমনও তো হতে পারে। সেই ভিডিওটা আপনার কাছে বাজে লাগলেও অন্য মানুষের কাছে সেই ভিডিওটা অনেক বেশি ইন্টারেস্ট  লাগতে পারে। যদিও নতুন অবস্থাতে আমাদের মাইক্রোফোন লাগে না। তাই হয়তো বা ভয়েস কোয়ালিটির সুন্দর হয় না।  তারপরে রয়েছে আমরা ফোন দিয়ে ভিডিও রেকর্ড করে। হতে পারে এরকম একটা প্রবলেম চেয়ে আমাদের ডিএসএলআর  ক্যামেরা নাই। অথবা আমাদের ফোনের ক্যামেরা খুবই খারাপ। 

 

বা আপনি ক্যামেরার সামনে এসে কোথায় বলতে পারেন না। আপনার মুখ দিয়ে কিছু বের হয়না। আপনি ভুলে  যান। তখন আমাদের স্বপ্নটা যেন আর পূরণ হতে চায় না।  ভাবতে হয় যে  আমাদের দ্বারা হয়তোবা এগুলো সম্ভব না।  এই যে আপনি ভাবলেন এটাই আপনার বড় সমস্যা।  অবশ্য এখন থেকেই আপনাকে বার বার ট্রাই করতে হবে। যে আপনার দ্বারা সম্ভব তবে একটু সময় ধৈর্য পরিশ্রমের প্রয়োজন হতে পারে।  তাহলে আপনিও পারবেন যে কিভাবে একটা সফল ইউটিউবার হওয়া যায়।  তখন আপনি অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন। প্রথমে যদি টাকার পেছনে না ছুটে শুধুমাত্র কনটেন্টের দিকে ফোকাস দেন। আপনি টাকার পিছনে ছুটে কিছুই করতে পারবেনা। 

 

সবার থেকে ভালো ভিডিও কেনো বানাবেন?

 আপনাকে কন্টেন্ট এর পেছনে ছুটতে হবে। যেন সবার থেকে আপনার কন্ঠটি দুর্দান্ত হয়।  তখনই মানুষ আপনাকে ফলো করে আপনাকে। ভালো লাগলে সাবস্ক্রাইব করবে। আপনার ভিডিওতে একটাতেই অস্টেম পূরণ হয়ে যাবে। তখন আপনি মনে করে নিতে পারবেন। এরপরে আপনাকে আর পেছনে ঘুরে তাকাতে হবে না।  আপনি অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন।  শুধুমাত্র ধৈর্য পরিশ্রম আর নিজের ক্রিটিভিটি থাকে। তখন মানুষের সাথে শেয়ার করে। আর আপনাকে কারো কাছে হাত পাততে হবে না। শুধুমাত্র একটা সাবস্ক্রাইবার এর জন্য।

 

আশা করি আমার ভিডিওতে দেওয়া কিছু গাইডলাইন মেনে চলার চেষ্টা করবেন। তাহলে আপনিও খুব দ্রুত সফল হবেন।  আর অবশ্যই যেগুলা বর্জন করার কথা বলা হয়েছে। সেগুলাকে আজ থেকেই আপনার মন থেকে মুছে ফেলুন।  এতে করে আপনার সফলতা দ্রুত  অর্জন করতে পারবেন। 

 

ভালো লাগলে এই আর্টিকেলটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করে তাদেরকে জানার সুযোগ করে দিন। ধন্যবাদ সবাইকে সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়ার জন্য। 

Related Articles

2 Comments

  1. I know this if off topic but I’m looking into starting my
    own weblog and was curious what all is required to
    get setup?
    I’m assuming having a blog like yours would cost a pretty penny?

    I’m not very internet smart so I’m not 100% positive.

    Any suggestions or advice would be greatly appreciated.

    Cheers

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button