Tech

ফেসবুক একাউন্ট ব্লু ভেরিফিকেশন: How to Verify Facebook Account blue tick 2022

technodipu.com

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

Facebook verified- আমরা সবাই চাই আমাদের ফেসবুক আইডি টা যেনো ভেরিফাইড করে দেয় ফেসবুক। তবে এর জন্য যা যা ট্রিকস এপ্লাই করতে হয়। তা আমরা কেউ জানিনা। তাই আমাদের আইডিতে বা ফেসবুক পেজে কখনোই নীল কালারের ভেরিফিকেশন ব্লো বেজ পাই না। এতে অনেক এপ্লাই করেও অনেকের কোনো লাভ হয় না। তাই আমি আজকে এই পোস্ট টির মাধ্যমে আপনাদের কে দেখাবো ১০০% ব্লো বেজ পাওয়ার ট্রিকস।

How to Verify Facebook Account blue tick

 

এর জন্য একজন ফেসবুক ব্যবহারকারীর সেলেব্রিটি হওয়া লাগে। যেটা সবাই হতে পারে না। তবুও অনেকে পাচ্ছে। কিন্তু তারা কিভাবে পাচ্ছে। সেটি আমি আপনাদের কে জানাবো। আর অবশ্যই কেউ ফেইক আইডি ভেরিফাই করার চেষ্টা করবেন। না এতে সরাসরি রিজেক্ট করে দিবে ফেসবুক আপনাকে। এতে করে আপনার কোনো ফয়দা হবে না। আপনাকে নিজের আইডি টা কে এমন ভাবে সাজাইতে হবে বা কাস্টমাইজ করতে হবে। যাতে ফেসবুক সেটি দেখলেই বুঝতে পারে আপনাকে মানুষ ফলো করে নিয়মিত। আর আপনি একজন সত্যিকারের ও অরিজিনাল ফেসবুক ব্যবহারকারী।

Read more-

 

Facebook blue badge verification

 

তবে আপনার মেইন মেইন পয়েন্ট এ যে যে নিয়ম গুলো মেনে চলতে হবে। প্রথম টা হলো আপনাকে আপনার আইডিতে এমন এমন কিছু পোস্ট করতে হবে। যা কোনো কপিরাইট এর আন্ডারে না পড়ে। যেমন অন্যের আইডি বা গুগল থেকে ডাউনলোড করে এনেই নিজের আইডি তে পোস্ট করে দিলেন। এতে কখনো ভেরিফাই পাবেন না।

ALSO READ  জন্মনিবন্ধন সার্টিফিকেট দিয়ে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়ম 2023 - e-Ticket Railway

নিজের অরিজিনাল পোস্ট বা নিজের তুলা পোস্ট গুলোতে প্রচুর পরিমানে রেস্পন্সিভ বাড়াতে হবে। যারা এটা বুঝেন না। তাদের উদ্দেশ্য বলতে গেলে আপনার যেকোনো পোস্ট করার সাথে সাথে অনেক বেশি লাইক, কমেন্ট, শেয়ার পেতে হবে। যা ফেসবুক ম্যানুয়ালি চেক করে থাকেন।

এবার ফলোয়ারের সংখ্যা অনেকের ৫-৬ হাজার এর মধ্যেও ভেরিফাইভ করতে পেরেছে। যেহেতু তাদের সম্ভব হয়েছে তাহলে আপনাকে ১ লক্ষ – ৫ লক্ষ ফলোয়ারের কোনো প্রয়োজন হবে না। এই বিষয় টা নিয়ে একদম নিশ্চিত থাকুন।

How do I request a verified badge on Facebook?

 

এখন বলবো এই ব্লু বেজের জন্য কিভাবে ফেসবুকের কাছে এপ্লাই করবেন। আর যা যা প্রয়োজন হবে।

তা নিচে দেওয়া হলো-

  1. ন্যাশনাল আইডি কার্ড/ গাড়ির লাইসেন্স অথবা পাসপোর্ট এর ছবি বা স্ক্রিন কপি।
  2. আগে নিজের সঠিক নাম। যা আইডি কার্ডের সাথে ম্যাচ করবে।
  3.  অনেক সময় ফেস ফ্রন্ট ক্যামেরা দিয়ে আইডেন্টিটি করতে হবে। তখন তাই করে নিতে হবে।
  4.  ভিউয়ার দের রেসপন্স ইত্যাদি।

 

এরপরে চলে যাবেন সরাসরি আপনার ফেসবুক আইডিতে। এখানে আসার পরে উপরের থ্রি লাইনে ক্লিক করে যে পেজটা আসবে। সেই পেজে থেকে একটু স্ক্রল ডাউন করে নিচে দেখবেন Help Center বলে একটা অপশন। সেখানে ক্লিক করলে আপনার সামনে একটা সার্চ বক্স চলে আসবে। যেটা আমি নিচে স্ক্রিনশর্ট দিয়েছি। এরপরে সেখানে Verification Badge লিখে সার্চ করবেন। দেখবেন Request a Verified Badge বলে সর্বপ্রথম একটা লিখা চলে আসবে।

 

Blue badge verification

 

সেখানে ক্লিক করলেই আপনাকে অনেক বড় একটা পেজে নিয়ে আসবে। যেখানে এটা পাওয়ার নিয়ম গুলো খুব সুন্দর করে বুঝিয়ে দেওয়া আছে। এবার চাইলে এগুলা পড়ে নিতে পারেন। তা আপনার ব্যক্তিগত বেপার। এবার Contact Form বলে একটা অপশন নীল কালারের দেখাবে। তবে এর জন্য কিছু টা স্ক্রল ডাউন করে নিচে নামতে হবে। সেখানে ক্লিক করে ফ্লাপ করতে হবে। যেটা ভালো ভাবে ফ্লাপ করতে হবে। আসুন দেখে নেই কিভাবে তা ফ্লাপ করবেন। তার জন্য নিচের স্ক্রিনশট ফলো করুন।

ALSO READ  ইউটিউবে চ্যানেল খুলে টাকা ইনকাম করার উপায়

Facebook verification form

 

যখন ফ্রমে আসবেন। এতে আপনাকে ২ টা অপশন দেখাবে। যেখানে রয়েছে-

1. Page
2. Profile

এতে করে আপনাকে নিজেরি বের করতে হবে আপনি কি ভেরিফাই করতে ইচ্ছুক। যখন একটু নিচে খেয়াল করবে আগের টা টিক মার্ক দেওয়া হয়ে গেলে। ক্যাটাগরি বলে আরো একটি অপশন থাকবে। যেখানে আপনার আইডিতে বা পেজে কি নিয়ে সব সময় পোস্ট করেন। সেই সম্পর্কের সাথে মিলি রান্নাবান্না হলে Cocking/ খেলাদুলা হলে Sports ইত্যাদি ক্যাটাগরি সিলেক্ট করুন। আবার আপনাকে কান্ট্রি দিতে হবে বাংলাদেশ থাকিলে বাংলাদেশ। আর ইন্ডিয়া থাকিলে ইন্ডিয়া।তারপরের অপশনে NID Card এর ফটো আপলোড করবেন। যেটা অরিজিনাল সেটাই দিবেন।

এগুলা হয়ে গেলে নিচে ৩ টা ফাকা ঘর পূরন করতে হবে। তবে এর জন্য আপনাকে সঠিক কিছু ডিলেইস বলতে হবে। এমন আপনি কে? কেনো ভেরিফাই করা প্রয়োজন আপনার আইডি বা পেজ টি ইত্যাদি নিজের মন মত লিখে দিবেন।

 

বাকি ২ ঘরে কিছু না দিলেও হবে। কারন সেগুলা অপশনাল ঘর। সব গুলা হয়ে গেলে SEND করবেন। অরা যদি আপনার আইডি দেখে বুঝতে পারে এটা ভেরিফাই করার যুগ্য। তাহলে অবশ্যই তারা যতটুকুদ্রুত সম্ভব চেষ্টা করবেন। তা না হলে রিজেক্ট করে দিবে। আবার রিপ্লাই এর জন্য।

Facebook blue badge application form

 

তো বন্ধুরা আশা করি সম্পুর্ন পোস্ট আপনার উপকারে এসেছে। ভালো লাগলে কমেন্ট করে জানাবেন। ধন্যবাদ,,

2 Comments

  1. ভাই একটু আইডিটা বেরিফাই করে দাও প্লিজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button